Ticker

6/recent/ticker-posts

মোবাইলে ইলেকট্রিক বিল জমা করবেন কিভাবে?

মোবাইলে ইলেকট্রিক বিল জমা করবেন কিভাবে? How to pay your electricity bill from mobile?

নমস্কার বন্ধুরা আপনাদের সকলকে নতুন এই পোস্টে স্বাগত জানাই। বন্ধুরা আজকে আমরা এই পোষ্টের মাধ্যমে বাড়িতে বসে মোবাইলের মাধ্যমে কিভাবে ইলেকট্রিক বিল জমা করবেন এবং তার পরে কিভাবে আবার রিসিপ্ট কপি বের করতে পারবেন সেটা কিন্তু আজকের এই পোস্টের মাধ্যমে বিস্তারিতভাবে আপনাদের সাথে আলোচনা করব।

মোবাইলে ইলেকট্রিক বিল জমা করবেন কিভাবে?

তাই বন্ধুরা আপনাদেরকে রিকোয়েস্ট করব এই পোস্টটি একদম মনোযোগ সহকারে শেষ পর্যন্ত পড়বেন এবং পোস্টটি পড়ার পরে ভাল লাগলে অবশ্যই বন্ধুদের সাথে শেয়ার করবেন যারা জানতে চায় মোবাইলের মাধ্যমে ইলেকট্রিক বিল জমা করবেন কিভাবে বাড়িতে বসে।

বন্ধুরা এখনকার দিনে ইলেকট্রিক নেই কিন্তু এমন কোন বাড়ি নেই তাই আমাদের প্রত্যেকের বাড়িতে কিন্তু প্রত্যেক তিন মাস অন্তর একটা ইলেকট্রিক বিল আসে এবং আমাদেরকে অনেক কষ্ট করে ইলেকট্রিক অফিসে যেতে হয় গাড়ি ভাড়া খরছ করে বা অনেক সময় কি হয় আমরা ইলেকট্রিক অফিসে না গেলেও কোনো কম্পিউটার সেন্টার বা সাইবার ক্যাফেতে গিয়ে ইলেকট্রিক বিল দিয়ে আসি এবং তার বিনিময়ে ওই সমস্ত সাইবার ক্যাফে গুলো আমাদের কাছ থেকে ইলেকট্রিক বিলের টাকা তো নেয়, তার সাথে সাথে ইলেকট্রিক বিল জমা দেওয়ার জন্য আমাদের কাছ থেকে এক্সটা কিছু টাকা চার্জ করে।

কিন্তু বন্ধুরা এখন আপনাদেরকে যেটা বলতে চলেছি তাতে কিন্তু আপনাদেরকে কোনো এক্সট্রা চার্জ ও দিতে হবে না এবং আপনাকে কষ্ট করে গাড়ি ভাড়া করে ইলেকট্রিক অফিস বা কোন কম্পিউটার সেন্টারে যেতে হবে না।

আপনার কাছে যদি একটা স্মার্টফোন থাকে এবং তাতে যদি ইন্টারনেট কানেকশন থাকে তাহলে কিন্তু খুব সহজে আপনি বাড়িতে বসেই যেকোনো ইলেকট্রিক বিল জমা দিতে পারবেন এবং তার প্রমাণ হিসেবে আপনারা ইলেকট্রিক বিল জমা দেওয়ার পর রিসিভ কপিও জেনারেট করতে পারবেন।

বন্ধুরা এখনকার দিনে অনেকগুলো কিন্তু অনলাইন অ্যাপ্লিকেশন বেরিয়ে গেছে যার মাধ্যমে আপনারা বাড়িতে বসে খুব সহজে বাড়ির ইলেকট্রিক বিল জমা করতে পারবেন যেমন ধরুন ফোন পে (Phonpe) গুগোল পে (Google pay) পেটিএম (Paytm) এই সমস্ত অ্যাপ্লিকেশনগুলো রয়েছে যার মাধ্যমে আপনারা বিভিন্ন ধরনের রিচার্জ থেকে শুরু করে বিভিন্ন বিল জমা করতে পারেন।


তবে বন্ধুরা আজকে আমি আপনাদেরকে ফোনপের (Phonpe) মাধ্যমে কিভাবে আপনারা ইলেকট্রিক বিল জমা করবেন সেটা দেখাতে চলেছি।


ফোনপে (Phonpe) থেকে ইলেকট্রিক বিল জমা করবেন কিভাবে?

বন্ধুরা ফোনপে অ্যাপ্লিকেশনের মাধ্যমে ইলেকট্রিক বিল জমা দেওয়ার জন্য কিন্তু আপনাকে সর্বপ্রথম ফোনপে অ্যাপ্লিকেশনে রেজিস্টার করতে হবে এবং আপনার ব্যাংক অ্যাকাউন্ট টা কে অবশ্যই লিংক করে রাখতে হবে।

এছাড়া আপনি যদি ব্যাংক একাউন্ট লিংক না করেও পেমেন্ট করতে চান তাহলে আপনার ব্যাংকের যে এটিএম কার্ড আছে ওই এটিএম কার্ডের ডিটেলস এন্টার করে সাবমিট করলে কিন্তু আপনার মোবাইল নাম্বারে ওটিপি আসবে এবং ওই ওটিপি এন্টার করে দিলেই কিন্তু আপনার যত টাকা ইলেকট্রিক বিল আপনি আপনার ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থেকে কাটাতে চান ঠিক ততটাই কিন্তু আপনার ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থেকেই কেটে নিবে এবং ইলেকট্রিক বিল জমা হয়ে যাবে।

এবার বন্ধুরা আপনাদেরকে চলুন বলি যে কিভাবে আপনারা ওই পুরো প্রসেসটা করবেন, যার মাধ্যমে আপনারা ইলেকট্রিক বিল জমা করতে পারবেন বাড়িতে বসে মোবাইলের মাধ্যমে।

ধরুন বন্ধুরা আপনার ফোনপে অ্যাপ্লিকেশনের সাথে ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট লিঙ্ক রয়েছে এবং আপনি ইলেকট্রিক বিল জমা করতে চাইছেন তার জন্য আপনাকে সর্বপ্রথম ফোনপে অ্যাপ্লিকেশনটি ওপেন করতে হবে এবং ওপেন করার পরে একদম হোমস্ক্রিনেই কিন্তু আপনারা ইলেকট্রিসিটি (Electricity) নামে একটা অপশন দেখতে পাবেন, ওই অপশনে ক্লিক করবেন।


ক্লিক করার পরে কিন্তু আপনারা বিভিন্ন ইলেকট্রিক বোর্ডের লিস্ট দেখতে পাবেন যেমন ধরুন আপনারা যদি ওয়েস্টবেঙ্গলের লোক হন তাহলে আপনারা CESC বা WBSEDCL এর লিস্ট দেখতে পাবেন। এছাড়া আপনারা যদি অন্যান্য কোন রাজ্যের বোর্ডের লোক হন তাহলে কিন্তু আপনারা ওই সমস্ত লিস্ট থেকে আপনার সঠিক বোর্ডটি বেছে নিতে পারবেন।


কিন্তু বন্ধুরা এখানে আমি আপনাদেরকে WBSEDCL বোর্ডের মাধ্যমে কিভাবে ইলেকট্রিক বিল জমা করবেন এবং ফাইনালি ইলেকট্রিক বিল জমা দেওয়ার পর রিসিভ কপি কিভাবে বের করবেন সেটা আপনাদের কে দেখাতে বলেছি।

বন্ধুরা এখানে যতগুলো ইলেকট্রিক বোর্ডের লিস্ট রয়েছে তার মধ্যে থেকে WBSEDCL বোর্ডটি বেছে নেবেন এবং আপনি Quarterly বিল দিবেন নাকি Monthly বিল দিবেন সেটা আপনাকে বেছে নিতে হবে।

আপনাদেরকে বলবো আপনারা Quarterly বিলটা দিবেন, কারণ আপনি যদি Monthly বিল পেমেন্ট করেন তাহলে আপনাকে কিন্তু এক্সট্রা চার্জ পে করতে হবে।

এর পরে আপনার যে Consumer ID যেটা ইলেকট্রিক বিলের একদম উপরে লেখা রয়েছে ৯টি সংখ্যার, ওই আইডিটা এখানে এন্টার করে দিবেন এবং এন্টার করে দেওয়ার পরে কিন্তু আপনারা সমস্ত ডিটেলস দেখতে পাবেন। আপনার কত টাকা বিল হয়েছে এবং আপনার নাম কি রয়েছে।

এর পরে আপনি কিন্তু বিল পেমেন্ট করার জন্য কিছু অপশন নিচের দিকে দেখতে পাবেন। এখানে আপনার ফোনপে অ্যাকাউন্টের সাথে যদি ব্যাংক একাউন্ট লিংক থাকে তাহলে ইউপিআই (UPI Payment) পেমেন্ট দেখাবে। এছাড়া আপনার কাছে যদি এটিএম কার্ড থাকে তাহলে এটিএম কার্ডের সমস্ত ডিটেলস এন্টার করে সাবমিট করবেন। এরপর আপনার মোবাইলের নাম্বারে একটা ওটিপি আসবে, ওই ওটিপি এন্টার করে সাবমিট করলে কিন্তু আপনার ইলেকট্রিক বিলের টাকা আপনার ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থেকেই কেটে নিবে এবং জমা হয়ে যাবে।


মোবাইলে ইলেকট্রিক বিল জমা দিয়ে রিসিপ্ট কপি পাবো কিভাবে?

এবার আছি বন্ধুরা আপনারা ইলেকট্রিক বিল জমা করার পরে ইলেকট্রিক বিলের রিসিপ্ট কপি কিভাবে জেনারেট করবেন।

বন্ধুরা এর জন্য আপনাদেরকে সরাসরি ইলেকট্রিক ডিপার্টমেন্টের যে ওয়েবসাইট WBSEDCL এ ভিজিট করতে হবে এবং এই ওয়েবসাইটে ভিজিট করলে আপনারা দেখতে পাবেন হোমস্ক্রীন এর উপরে Download Payment Receipt বলে একটা অপশন রয়েছে, ওই অপশনে আপনারা ক্লিক করবেন।


ক্লিক করার পরে আপনারা একটা বক্স দেখতে পারবেন ওখানে আপনারা কনজুমার আইডি (Consumer ID) সিলেক্ট করবেন।

এরপরে আবার আপনারা নিচের দিকে অনেকগুলো বক্স পাবেন, যেখানে আপনাকে আপনার কোন Consumer ID এন্টার করার কথা বলবে এবং নিজে থাকা ক্যাপচা ফিলাপ করার কথা বলবে। আপনারা সবকিছু ফিলাপ করে পাশে থাকা Proceed বটনে ক্লিক করবেন।


এরপরে বন্ধুরা আপনারা আবার দুটো অপশন পাবেন যেখানে একটাতে লেখা রয়েছে Download Pending Payment History এবং আরেকটাতে রয়েছে Successful Payment History

বন্ধুরা আপনাদেরকে এখন একটা কথা বলি, আপনারা যখন ফোনপে অ্যাপ্লিকেশনের মাধ্যমে ইলেকট্রিক বিল জমা করবেন বা অন্য কোনো মাধ্যমে ইলেকট্রিক বিল জমা করবেন, সাথে সাথে কিন্তু আপনারা ইলেকট্রিক বিলের রিসিভ করতে জেনারেট করতে পারবে না, তার জন্য আপনাকে কমপক্ষে 1 ঘন্টা অপেক্ষা করতে হবে, কারণ আপনি যে এলেক্ট্রিক জমা করলেন সেটার আপডেট হতে WBSEDCL এর ওয়েবসাইটে একটু টাইম লাগে।

তাই এক ঘণ্টা অপেক্ষা করবেন এবং আপনার যে Sucessful Payment History বক্সটা দেখতে পাচ্ছেন ওখানে ক্লিক করলে কিন্তু আপনি আপনার যে ইলেক্ট্রিক বিল পেমেন্ট করেছেন তার রিসিভ কপি ডাউনলোড করতে পারবেন।

এছাড়া বন্ধুরা আপনারা যদি সাথে সাথে পেমেন্ট রিসিভ জেনারেট করতে চান তাহলে Pending Payment Receipt জেনারেট করতে পারবেন, তার জন্য আপনাকে পাশে থাকা Pending Payment History অপশনে ক্লিক করতে হবে।

এবং এইভাবে বন্ধুরা বাড়িতে বসে মোবাইলের মাধ্যমে খুব সহজে ইলেকট্রিক বিল জমা করতে পারবেন এবং ইলেকট্রিক অফিসে যাওয়ার ঝঞ্ঝাট থেকে মুক্ত হতে পারবেন এবং কম্পিউটার সেন্টার বা সাইবার ক্যাফেগুলোতে এক্সট্রা টাকা পেমেন্ট করার হাত থেকে মুক্তি পাবেন।

তাহলে বন্ধুরা যদি আপনাদের এই পোস্টটি পড়ে হেল্পফুল বলে মনে হয় যদি কিছু জানতে পারলেন কিছু শিখতে পারলেন বলে মনে হয় তাহলে অবশ্যই বিভিন্ন ধরনের সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করবেন এবং আপনার ঐ সমস্ত বন্ধু-বান্ধবদের সাথে শেয়ার করবেন যারাও জানতে চাই যে কিভাবে বাড়িতে বসে মোবাইলের মাধ্যমে ইলেকট্রিক বিল পেমেন্ট করা যায় এবং তার সাথে সাথে ইলেকট্রিক বিলের রিসিপ্ট কপিও জেনারেট করা যায়

এছাড়া বন্ধুরা আপনারা চাইলে এই টপিকের ওপর বিস্তারিত একটা ভিডিও রয়েছে আমাদের ইউটিউব চ্যানেল BM tricks এ, গিয়ে দেখতে পারেন এবং বন্ধুদের সাথে শেয়ার করতে পারেন।

তাহলে বন্ধুরা এখানে আজকের মতো এই পোস্টটির শেষ হচ্ছে দেখা হচ্ছে পরবর্তী কোন নতুন ইন্টারেস্টিং পোষ্টের সাথে ততক্ষণ আপনারা সুস্থ থাকুন সুরক্ষিত থাকুন ভালো থাকুন।

এগুলো পড়ুন


Reactions

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

1 মন্তব্যসমূহ

  1. Explore an enormous collection of hyper-versatile determine content and convey your characters to life with tens of hundreds of supporting assets. Bring your creations to life with photorealistic pictures and animations powered by studio-class processing. Daz Studio permits you to simply create customized scenes and characters in portable heaters seconds.

    উত্তরমুছুন